রামুতে পিকআপ ভাংচুর করে লুট হওয়া মালামাল, পুলিশ কর্তৃক উদ্ধার

RAMU-PICT-28.3.2018-2.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কক্সবাজারের রামু কলেজ গেইট সংলগ্ন এলাকায় একটি পিকআপে ব্যাপক ভাংচুর করে তিন লাখ টাকার মালামাল লুট করার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। দুপুরে রামু থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পিকআপটি উদ্ধার করেছে। এঘটনায় অজ্ঞাতনামা সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
থানার দায়েরকুত এজাহার সুত্রে জানা গেছে, রামু উপজেলার রাজারকুল ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড সিকদারপাড়া গ্রামের মৃত মৌলভী শরীপ আহমদ সিকদারের ছেলে সিকদার শফি উল্লাহ মনছুরের মালিকানাধনি পিকআপ (গাড়ি নং-কক্সবাজার-ড-১১-০০৫৪) নিয়ে চালক বাহাদুর বুধবার সকালে ইট বোঝাই করার জন্য রামু কলেজ গেইট হতে আনুমানিক তিন’শ গজ দুরে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পার্শ্বে গাড়ি দাড় করান। সেখানে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ধারালো অস্ত্রে সস্ত্রে সজ্জিত অবস্থায় আলী আহম্মদের নেতৃত্বে ৭/৮ জনের একদল দুবৃত্ত গাড়ি চালক বাহাদুরকে মারধর করে গাড়ি থেকে নামিয়ে দেয়। গাড়ির সামনের গ্লাস, লাইট ও গাড়ি বড়ি ভাংচুর চালায়। এসময় গাড়ির ২টি ব্যাটারী, ইঞ্জিনের যন্ত্রাংশ, ২টি চাকা, একটি ফরম এক্সেল ও আরো অন্যান্য যন্ত্রাংশ সহ প্রায় ৩ লাখ টাকার মালামাল লুট করে।
এঘটনায় গাড়ি মালিক সিকদার শফি উল্লাহ মনছুর বাদি হয়ে তেচ্ছিপুল সিকদারপাড়ার আলী আহম্মদ, মোঃ আলী প্রকাশ খোকন ড্রাইভার, নুরুল আলম, সাতঘরিয়া পাড়ার মোহাম্মদ শফি ও জসিম উদ্দিনের নাম উল্লেখ করে আরো আজ্ঞাতনামা ৩ জনের বিরুদ্ধে রাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।
বুুধবার বিকালে রামু থানার এসআই একরামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পিকআপটি ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে যান।
মামলার বাদি সিকদার শফি উল্লাহ মনছুর জানান, আলী আহম্মদের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ থাকার আক্রোশে পরিকল্পিত ভাবে এ ঘটনাটি সংগঠিত করেছে। এঘটনার পর তাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ। এব্যাপারে তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Top