পেকুয়ায় নিখোঁজ জেলের সন্ধান মিলল মায়ানমারে

searce.jpg

স্টাফ রিপোর্টার, পেকুয়া :
পেকুয়ায় নিখোঁজ জেলে বাহাদুর(২০) এর সন্ধান মিলল প্রতিবেশী দেশ মায়ানমারে। মাছ ধরতে গভীর সাগরে পাড়ি দেয় বাহাদুর। এ সময় গভীর সাগরে ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। এ সময় প্রাণহানি হয়েছে অনেক জেলের। নিখোজ ছিল ট্রলারের মাঝিমাল্লা। নিখোঁজ জেলেদের একজন পেকুয়ার এ বাহাদুর। তিনি পেকুয়া সদর ইউনিয়নের পূর্ব গোয়াখালী এলাকার আক্তারের ছেলে। অবশেষে জেলে বাহাদুরের সন্ধান পাওয়া গেছে। তার পরিবার ও এলাকাবাসীরা নিশ্চিত করেছেন ফিশিং ট্রলার ডুবির এ ঘটনায় জেলে বাহাদুর জীবিত আছেন। পানিতে ভেসে বাহাদুর মায়ানমারের তীরে উঠেন। এ সময় সে দেশের প্রশাসন তাকে আটক করে। অনুপ্রবেশকারী হিসেবে তাকে মায়ানমারের জেলে আটক করা হয়। সুত্র জানায়, ২০১৪ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত বাহাদুর নিখোঁজ ছিলেন। ওই বছরের ১৫ নভেম্বর বাড়ি থেকে সাগরে পাড়ি দেয় বাহাদুর। সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে ফিশিং ট্রলার ডুবির কবলে পড়ে তারা। ওই সময় থেকে প্রায় ৩ বছর নিখোঁজ ছিল বাহাদুর। পরিবারে শোকের মাতম চলছিল। ধরে নেওয়া হয়েছিল নিশ্চিত প্রাণহানি হয়েছে বাহাদুরের। তবে আকস্মিক গত ২০১৭ সালের ১৫ জুলাই বাড়িতে ফিরেন বাহাদুর। এ সময় বাড়িতে এক অদ্ভুদ পরিস্থিতি দেখা দেয়। তাকে দেখতে মানুষ জড়ো হয় বাড়িতে। জেলে বাহাদুর জানিয়েছিলেন ট্রলার ডুবির বীভৎস কাহিনী। সমুদ্রের উত্তাল তরঙ্গমালার সাথে যুদ্ধ করে তিনি মায়ানমারের তীরে ভেসে যান। এ সময় সে দেশের প্রশাসন তাকে জেলে আটকিয়ে রাখে। সুত্র জানায়, বাহাদুর গত কয়েকদিন আগে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। তার বিরুদ্ধে একটি মামলা রুজু হয়। জামিন নিতে গিয়েছিলেন আদালতে। জামিন না মঞ্জুর হওয়ায় তাকে জেলে পাঠানো হয়। অভিযোগ উঠে, তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এ অবস্থায় এ মামলাটি হয়েছে। এ মামলায় তাকে জেলে যেতে হল। সমুদ্রের সাথে যুদ্ধ করে বাঁচলেও চক্রান্তের ফাঁদে ফাঁসানো হল দরিদ্র এ জেলে বাহাদুরকে। তিনি কারাবরন করছেন। আবারও শংকায় পড়তে হয়েছে তার পরিবারকে।

Top