আল্লাহর নৈকট্য লাভের বার্তা নিয়ে ফিরে এলো মাহে রমজান

14.bmp

এলো সিয়াম সাধনার মাস পবিত্র রমজান। মাহে রমজান মানুষকে সংযমী হতে শেখায়। সকল ভোগবিলাস, অপচয় অন্যায় ও অকল্যাণকর সবকিছু ত্যাগ করার শিক্ষা দেয় মাহে রমজান। এই পবিত্র মাসে মুমিন মুসলমানগণ মন্দ সবকিছু পরিত্যাগ করে এবং সারাদিন পানাহার বর্জন করে মহান আল্লাহ্-তায়ালার সান্নিধ্য লাভের জন্য ইবাদত-বন্দেগী করে থাকে!
অন্যদিকে আর এক শ্রেণীর মানুষ এই মাসে অনৈতিক ভাবে আয় উপার্জনের জন্য চরম অসততার পথ বেছে নেয় যা চরম দুঃখ জনক। এই সময় এক শ্রেণীর ব্যবসায়ী নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে যা সামাজিক ও ধর্মীয় দৃষ্টিকোনে বড়ই গর্হিত কাজ। এটা চরম অপরাধ। তাই মাহে রমজানে যারা নিত্যপণ্যের মূল্য বাড়ায় তাদের এই গর্হিত কর্মকা- দমন করা প্রশাসনের কর্তব্য বলে আমরা মনে করি। প্রতি বারের মতো এ বারেও নিত্যপণ্যের বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টি করে বেশী মুনাফা অর্জনের জন্য যে অপতৎপরতা চালাছে প্রশাসনকে তা কঠোর হাতে দমন করতে হবে। দেশে পর্যাপ্ত মজুদ থাকা সত্ত্বেও পণ্যের দাম কেন বাড়াছে, তা চিহ্নিত করে প্রশাসনকে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।
অতীতে দেখা গেছে রমজানে সাধারণত যানজট ও আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটে থাকে। এ ব্যাপারেও প্রশাসনকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। এছাড়াও পবিত্র ঈদ উপলক্ষে এক শ্রেণীর মানুষ চাঁদাবাজীতে লিপ্ত হয় এদের দৌরাত্ম্য থেকেও জেলাবাসীদের রক্ষায় কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।
এ মহিমান্বিত মাসে আল্লাহ্-পাক পবিত্র কোরআন নাজিল করেন। যা ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের জন্য পরিপূর্ণ জীবন বিধান। এই জীবন বিধানের আলোকে পবিত্র রমজান মাস আমাদের দেশের মানুষের জন্য আত্ম-ত্যাগ ও সংযমের মহিমায় সমুজ্জ্বল হোক। দেশের সকল মানুষ এবং “সাপ্তাহিক সাগরকন্ঠ ও সাগরকন্ঠ ডটকম’র প্রিয় পাঠক, লেখক, বিজ্ঞাপন দাতা, এজেন্ট, সকল প্রতিনিধি ও কলাকুশলী, শুভানুধ্যায়ীর জীবনে কল্যাণ বয়ে আনুক এই প্রত্যাশা রইলো।

সবাইকে জানাই পবিত্র রমজানের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

Top