‘পাকিস্তান শত্রুদের লালন করে’ –ট্রাম্প

download.jpg

সাগরকণ্ঠ ডটকম ডেস্ক :

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পাকিস্তানে ১৩০ কোটি ডলারের আর্থিক সহায়তা বন্ধ করে দিয়েছেন। তিনি মনে করেন, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো শত্রুদের ঘর। ত্রাণ বন্ধ করে দিলেও ট্রাম্প পাকিস্তানের সঙ্গে খুব ভালো সম্পর্ক চান। গতকাল বুধবার এই ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি। এ যেন অনেকটা গরু মেরে জুতো দানের মতো ব্যাপার।

ইকোনমিক টাইমসের খবরে জানানো হয়, ট্রাম্প প্রশাসন তালেবান জঙ্গিদের সঙ্গে শান্তি আলোচনার উদ্যোগ নিয়ে খুব বেশি ভাবছে না। তবে পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে খুব শিগগির বৈঠক করবেন ট্রাম্প।

এর আগে ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ হিসেবে দাবি করা দক্ষিণ ক্যারোলাইনার সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম এক সাক্ষাৎকারে সিএনএনকে জানান, পাকিস্তান তালেবান জঙ্গিদের আলোচনার টেবিলে বসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে সহযোগিতা করছে। এরপর যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাস ও আইএস দমনে কাজ করবে।

 

রিপাবলিকান সিনেটর গ্রাহাম চান, আফগানিস্তানের যুদ্ধ অবসানে তালেবান জঙ্গিদের শান্তি আলোচনায় আনার প্রচেষ্টা হিসেবে পাকিস্তানকে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির প্রস্তাব দিক যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ‘আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক চাই। তবে দেশটি শত্রুদের ঘর। তারা শত্রুদের লালন করে। আমরা সেটা করতে পারি না।’ ট্রাম্প আরও বলেন, ‘এ কারণে পাকিস্তানের নতুন নেতার সঙ্গে আমি বৈঠক চাই। তবে আমি পাকিস্তানে ১৩০ কোটি ডলারের সহায়তা বন্ধ করেছি। আমি মনে করি, এই অর্থ পানিতে পড়েছে। তাই আমি এটি বন্ধ করেছি।’

 

গত বছরের আগস্ট মাসে ইমরান খান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথগ্রহণ করেন। ওই বছরের জানুয়ারি মাসে ইমরান খান বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে তিনি ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করবেন।

গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ইসলামাবাদে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি হয়ে ওঠা তালেবান জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ইমরান খানকে চাপ দেন পম্পেও।

Top